আজ মঙ্গলবার, ৩১শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ১৭ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৯ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি
আজ মঙ্গলবার, ৩১শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ১৭ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৯ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি

মেসি দেখিয়ে দিল কিভাবে জয়ে ফিরতে হয়

অ ব শে ষে আবারো গোওওওল। এবার এনজো ফার্নান্দেজ। যেন নিখুঁত পায়ের মাপা শট। এক কিকে থার্ডবারে পরাস্ত মেক্সিকোর গোলকিপার। কিছু বুঝে উঠার আগেই ঝাঁঝালো শটের বল গেলো জালে। আর তার পরই উল্লাসে ফেটে পড়ে পুরো গ্যালারি। খেলার দ্বিতীয়ার্ধের ঝলক দেখান এনজো ফার্নান্দেজ। তার গোলেই মূলত ব্যাকফুটে চলে যায় মেক্সিকো। আর তাতেই জয়ের দেখা পায় আর্জেন্টিনা।

মেসির বানিয়ে দেয়া পাসে ডি বক্সের বাইরে থেকে থার্ড বারে বল সুট করেন ফার্নান্দেজ, আর তাতেই ৮৭ মিনিটে কাজের কাজ দ্বিতীয় গোল হয়ে যায়। এরআগে ৬৪ মিনিটে মেসির করা এই দৃষ্টি নন্দন গোলেই এগিয়ে যায় আর্জেন্টিনা।

বাংলাদেশ সময় রাত ১ টায় কাতারের লুসাইল আন্তর্জাতিক ফুটবল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হয় ম্যাচটি। আজকের ২-০ ব্যবধানের এই জয়ে শেষ ষোলর আশা বাঁচিয়ে রাখলো মেসির দল।

এর আগে খেলার দ্বিতীয়ার্ধে সময় পেরিয়ে যাচ্ছিল, কি হচ্ছে কি হবে এমন অবস্থা, কিন্তু গোলের দেখা পাচ্ছিল না আলবিসেলেস্তেরা। যে গোল না পেলে বিদায়ের খুব কাছেই চলে যাবে দল। এমন সব মুহূর্তে আর্জেন্টিনা যার দিকে তাকিয়ে থাকে, আজও দৃষ্টি ছিল তার দিকেই। অবশেষে লিওনেল মেসিই করলেন মহাগুরুত্বপূর্ণ সেই গোলটা।

অথচ শুরুতে ম্যাচে নেমে মেক্সিকোর বিপক্ষে যেনো খেই হারিয়ে ফেলে আর্জেন্টিনা। তাদের স্বভাব সুলভ যে খেলা তার বিন্দুমাত্র প্রদর্শন করতে পারছেন না মেসিরা। এমন ধারহীন খেলায় মাঠে অনেকটা বিমর্ষ ও বিরক্ত দেখা যাচ্ছিল আর্জেন্টিনার অধিনায়ক লিয়নেল মেসিকে।

যার ফলে উল্টো একের পর এক আক্রমণ করে যাচ্ছে মেক্সিকো। এমনকি একটি গোলও হজম করতে হতো আর্জেন্টিনাকে। যদি তাদের কিপার ত্রাতা হয়ে বলটা আটকাতে না পারতেন। এমন ম্যারম্যারে খেলায় গোল শূন্য ড্র দিয়েই বিরতিতে যায় দু’দল।

বল দখলে মেসিরা শুরু থেকে এগিয়ে থাকলেও প্রথমার্ধে একটিও গোলের সুযোগ তৈরি করতে পারেনি আর্জেন্টিনা। বরং মেসিদের থেকে উজ্জ্বল ছিল মেক্সিকো। ১৪ মিনিটে মাঝনাঠের বাইরে থেকে নেয়া মেক্সিকান ভেগার ফ্রি কিক থেকে বল ডিক্সের ভেতরে গেলেও আর্জেন্টাইন গোলরক্ষক সেটি আটকে দেন।

আগের ম্যাচে সৌদি আরবের বিপক্ষে পোল্যান্ডের জয়ে এই ম্যাচে তাই জিততেই হবে আর্জেন্টিনাকে। ৩৩ নিনিটে ডি বক্সের বাইরে থেকে নেয়া মেসির ফ্রি কিক ওচোয়া পাঞ্চ করে ক্লিয়ার করেন৷ ৪০ মিনিটে কর্নার থেকে ডি মারিয়ার ক্রসে লাউতারো মার্টিনেজের হেড খুজে পায়নি গোলের দেখা।

খেলা শেষের এক মিনিট ডি বক্সের বাইরে থেকে ফ্রি কিক পায় মেক্সিকো। ভেগার দুর্দান্ত ফ্রি কিক ডান পাশে লাফিয়ে দুর্দান্তভাবে গ্লাভস বন্দী করেন এমি মার্টিনেজ। গোলশূন্য অবস্থাতেই বিরতিতে যায় দুই দল।

টানা ৩৬ ম্যাচ অপরাজিত থাকার পর সৌদি আরবের কাছে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ২-১ গোলে হেরে যায় লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনা। তাই শেষ ষোলোর লড়াইয়ে টিকে থাকতে হলে মেক্সিকোর বিপক্ষে আজকের ম্যাচে জয়ের কোনো বিকল্প নেই আকাশী-নীলদের সামনে। এমন সমিরকণের ম্যাচে পাঁচ পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নামে মেসির আর্জেন্টিনা।

বিশ্বকাপে টিকে থাকার মিশনে আর্জেন্টিনার জন্য এই ম্যাচটি ছিল অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। নকআউটের আশা বাঁচিয়ে রাখতে এ ম্যাচে জয় কিংবা অন্তত ড্র করতেই হত মেসি বাহিনীর। হারলেই বাদ পড়তে হবে টুর্নামেন্ট থেকে।

শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
Pin on Pinterest
Pinterest
Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin