আজ রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরি
আজ রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরি

জানুয়ারি পর্যন্ত চলতে পারে সিনেট দখল লড়াই

মার্কিন কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ সিনেট দখলের লড়াই আগামী জানুয়ারি পর্যন্ত চলতে পারে। এর আগে থামবে বলে মনে হয় না।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ রাজ্য জর্জিয়ার ভোট পরিস্থিতিতে এমনটাই মনে করছেন পর্যবেক্ষকরা। দোলায়মান বা সুইং স্টেট খ্যাত এই রাজ্যে ফের নির্বাচন দেয়া লাগতে পারে।

কারণ রাজ্য আইন মতে, নির্বাচনে কোনো প্রার্থীই এখন পর্যন্ত প্রয়োজনীয় ৫০ শতাংশ ভোট নিশ্চিত করতে পারেনি। ফলে নতুন সিনেট অধিবেশন শুরুর দু’দিন পর আগামী ৬ জানুয়ারি নতুন করে নির্বাচন হতে পারে। খবর বিবিসির।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন ঘিরে চলছে চরম উত্তেজনা। হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে জয়ের আরও কাছাকাছি চলে গেছেন ডেমোক্র্যাট জো বাইডেন।

তবে বর্তমান প্রেসিডেন্ট ও রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প নিজের জয় দাবি করে আদালতের যাওয়ার ঘোষণা দেয়ায় চূড়ান্ত ফলাফল নিয়ে জটিলতার মুখে পড়েছে যুক্তরাষ্ট্র। শুধু প্রেসিডেন্ট নির্বাচন নয়, যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ সিনেট এবং নিুকক্ষ হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভস বা প্রতিনিধি পরিষদেও চলছে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই।

১০০ আসনের সিনেটে নিয়ন্ত্রণ পেতে অন্তত ৫১টি আসন নিশ্চিত করতে হবে। বর্তমানে রিপাবলিকানদের ৫৩টি আসন ছিল। এবারও সিনেটে ফের নিয়ন্ত্রণ নেয়ার পথে এগিয়ে যাচ্ছে তারা। অন্যদিকে ডেমোক্র্যাটদের ছিল ৪৭টি। এই নির্বাচনের মধ্য দিয়ে নতুন করে আরও চারটি দখলের আশায় ডেমোক্র্যাটরা।

ফক্স নিউজ জানিয়েছে, নির্বাচনে এখন পর্যন্ত পর্যন্ত ৩৫টি সিনেট আসনের ২০টিতে জিতেছেন রিপাবলিকান প্রার্থীরা। তাদের সিনেট আসন এখন ৫০। অন্যদিকে ১৩টি আসনে জিতে সিনেটে ডেমোক্র্যাটদেরও আসন সংখ্যা এখন ৪৮টি।

ঐতিহ্যগতভাবে রিপাবলিকান ঘাঁটি জর্জিয়ার দু’টি আসন ডেমোক্র্যাটদের হলে সিনেটে উভয় দলের আসন হবে ৫০-৫০।

এদিকে কংগ্রেসের নিুকক্ষ হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসে এখনও বেশ কিছু আসনে ফল ঘোষণা বাকি থাকলেও এগিয়ে আছে ডেমোক্র্যাটরাই। ৪০১টি ঘোষিত আসনের মধ্যে ২০৯টি জিতে নিয়েছে ডেমোক্রেটিক পার্টি। আর ১৯৩টি জয়ী রিপাবলিকানরা।

সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে বাকি ৩৪টি আসনের মধ্যে ৯টি জিততেই হবে তাদের। তবে আগে ধরে রাখা কিছু আসন হারিয়ে ফেলায় তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছেন ন্যান্সি পেলোসিসহ ডেমোক্রেটিক পার্টির জ্যেষ্ঠ নেতারা। কয়েকজন সদস্য বলছেন, তাদের প্রার্থীদের সমাজতন্ত্রী বলে আক্রমণ করা হয়েছে।

কিন্তু ব্যক্তিস্বার্থ রক্ষা করতে গিয়ে তা ঠেকাতে ব্যর্থ হয়েছেন পেলোসিসহ অন্যরা। হেডটপিক দলটির নেতারা বলেছিলেন, তারা বিশাল ব্যবধানে জিততে চলেছেন। শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত অন্তত পাঁচটি আসন কেড়ে নিয়েছিলেন রিপাবলিকানরা।

এ কারণে এবার নিশ্চিতভাবেই কমছে ডেমোক্রেটিক সংখ্যাগরিষ্ঠতা। কারণ গাধা প্রতীকধারীরা হাতি প্রতীকধারীদের কাছ থেকে একটি আসনও কাড়তে পারেননি। পলিটিকো

এ বছর অ্যারিজোনা ও কলোরাডোতে রিপাবলিকান সিনেটরদের হারিয়ে দিয়েছে ডেমোক্র্যাটরা। বিপরীতে আলাবামায় একটি সিনেট আসন অর্জন করেছে রিপাবলিকানরা।

নর্থ ক্যারোলিনা ও আরকানসাসে আগেই যেমনটা মনে করা হচ্ছিল নিজেদের আসনগুলো ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছেন টম টিলিস ও ড্যান সুলিভ্যান। কিন্তু জর্জিয়ার দুই আসনে ফের নির্বাচন হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি।

শেয়ার করুন:
Share on Facebook
Facebook
Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Print this page
Print