আজ মঙ্গলবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২ জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি
আজ মঙ্গলবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২ জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

বিশ্বজুড়ে ফের বেড়েছে মৃত্যু ও সংক্রমণ

বিশ্বে গত একদিনে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৭ হাজার ৪৪৮ জন। নতুন মৃত্যু নিয়ে বিশ্বজুরে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ৪৮ লাখ ৩০ হাজার ৬৩২ জনে।

একই সময়ের মধ্যে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লাখ ৮ হাজার ৭৯৫ জন। এতে মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত ভাইরাসে আক্রান্ত মোট রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৩ কোটি ৬৫ লাখ ৬৯ হাজার ১৯৭ জনে।

বুধবার সকাল সাড়ে ৮টায় আন্তর্জাতিক পরিসংখ্যানভিত্তিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী দেখা যায়, গত একদিনের তুনের তুলনায় বিশ্বে বিশ্বজুড়ে ফের বেড়েছে মৃত্যু ও সংক্রমণ।

এদিকে গত একিদেন বিশ্বে করোনায় সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রে। এই সময়ের মধ্যে দেশটিতে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৯৪ হাজার ৭৯০ জন এবং মারা গেছেন ১ হাজার ৮০৩ জন। করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৪ কোটি ৪৭ লাখ ৮১ হাজার ১৭৯ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ৭ লাখ ২৪ হাজার ৭২০ জন মারা গেছেন।

অন্যদিকে দৈনিক প্রাণহানির তালিকায় এরপরই রয়েছে রাশিয়া। গত একদিনে দেশটিতে মারা গেছেন ৮৯৫ জন এবং নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ২৫ হাজার ১১০ জন। এছাড়া মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৭৬ লাখ ৩৭ হাজার ৪২৭ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ২ লাখ ১১ হাজার ৬৯৬ জনের।

লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল করোনায় আক্রান্তের দিক থেকে তৃতীয় ও মৃত্যুর সংখ্যায় তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। গত একদিনে দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৬৮৬ জন এবং নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ২০ হাজার ৫২৮ জন। অপরদিকে মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ২ কোটি ১৪ লাখ ৯৯ হাজার ৭৪ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৫ লাখ ৯৮ হাজার ৮৭১ জনের।

এদিকে করোনায় আক্রান্তের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে প্রতিবেশী দেশ ভারত। তবে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যার তালিকায় দেশটির অবস্থান তৃতীয়। গত একদিনে দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ২৮৫ জন এবং নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১৯ হাজার ৩৮০ জন। দেশটিতে মোট আক্রান্ত ৩ কোটি ৩৮ লাখ ৭০ হাজার ৩৮৫ জন এবং মারা গেছেন ৪ লাখ ৪৯ হাজার ৫৬৮ জন।