আজ মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০শ সফর, ১৪৪৩ হিজরি
আজ মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০শ সফর, ১৪৪৩ হিজরি

দেশে আসছে চীনের সিনোফার্মের আরো ২০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন। আজ শনিবার রাত ১১টা ও ৩টায় আলাদা দুইটি ফ্লাইটে করে রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছাবে এসব ভ্যাকসিন।
স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের পাঠানো প্রেস বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বিমানবন্দরে উপস্থিত থেকে এসব ভ্যাকসিন গ্রহণ করবেন।

এর আগে, এ মাসের প্রথম সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্র ও চীন থেকে চারটি ফ্লাইটে ৪৫ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন দেশে আসে। ২ জুলাই রাত থেকে ৩ জুলাই সকাল পর্যন্ত ১০ ঘণ্টা সময়সীমায় ভ্যাকসিন বহনকারী এসব ফ্লাইট ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায়।

গত ৩ জুলাই রাত সাড়ে ১১টায় প্রথম চালানে কোভ্যাক্সের আওতায় যুক্তরাষ্ট্রের মডার্নার সাড়ে ১২ লাখ ভ্যাকসিন ঢাকায় আসে। ভ্যাকসিনগুলো নিয়ে এমির‌্যাটস এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইট হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী, স্বাস্থ্যমন্ত্রী, পররাষ্ট্র সচিব, স্বাস্থ্য সচিব, মার্কিন রাষ্ট্রদূতসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা এ সময় বিমানবন্দরে উপস্থিত ছিলেন। পরে সকাল ৮টা ৪০ মিনিটে মডার্নার আরো ১২ লাখ ৬৭ হাজার দুইশ’ ডোজ ভ্যাকসিন ঢাকায় এসে পৌঁছায়। ভ্যাকসিন বহনকারী বিমানটি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে অবতরণ করে। এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত রবার্ট আর্ল মিলার।

এর আগে, ২ জুলাই দিবাগত রাত সাড়ে ১২টায় চীনের বেইজিং থেকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি বিশেষ ফ্লাইটে সিনোফার্ম উদ্ভাবিত ১০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায়। এ সময় স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেনসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সে সময় বিমানবন্দরে উপস্থিত সাংবাদিকদের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানান, আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে ১০ কোটি ভ্যাকসিনের ডোজ আসবে। তা দিয়ে ৫ কোটি লোককে ভ্যাকসিন দেওয়া যাবে।