আজ বুধবার, ২৩ জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৯ আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১২ জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি
আজ বুধবার, ২৩ জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৯ আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১২ জিলকদ, ১৪৪২ হিজরি

মেট্রোরেলের আরেক সেট ট্রেন এখন ঢাকায়

ঢাকায় পৌঁছেছে মেট্রোরেলের ছয় কোচের আরেক সেট ট্রেন। মঙ্গলবার রাতে দুটি বার্জে ট্রেনটি নদী পথে মেট্রোরেলের দিয়াবাড়ি ডিপো সংলগ্ন তুরাগ নদী ঘাটে এসে পৌঁছায়।
আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে বুধবার সকাল আটটা থেকে এসব কোচ উত্তরায় মেট্রোরেলের ডিপোতে নেয়া হবে। ডিপোতে নেয়ার পর দ্বিতীয় সেট ট্রেনের ১৯ ধরনের পরীক্ষা করা হবে।

এ তথ্য জানিয়েছেন মেট্রোরেল প্রকল্প বাস্তবায়নকারী সংস্থা ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের (ডিএমটিসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এমএএন ছিদ্দিক।

২১ এপ্রিল জাপানের কোবে বন্দর থেকে দ্বিতীয় ট্রেন সেটটি জাহাজে যাত্রা করে। এরপর ৯ মে বাংলাদেশের মোংলা বন্দরে পৌঁছায়। পরে আনুষঙ্গিক কাজ শেষে ২৪ মে বার্জে করে নদী পথে ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা করে। কিন্তু ঘূর্ণিঝড় যশের কারণে বার্জগুলো ২৬ মে থেকে দুদিন ঝালকাঠিতে নোঙর করে রাখা হয়। ২৮ মে ফের যাত্রা করে মঙ্গলবার এসে পৌঁছায়।

ডিএমটিসিএল’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক এমএএন ছিদ্দিক বলেন, প্রথমটির মতো দ্বিতীয় ট্রেন সেটটিও ডিপোতে আনার পর ১৯ ধরনের পরীক্ষা করা হবে। এরপর বলা যাবে কবে নাগাদ পরীক্ষামূলক যাত্রা (ট্রায়াল রান) করা হবে। আগামী আগস্ট মাস নাগাদ ট্রায়াল রান শুরু করা যাবে বলে আশা করছি।

এর আগে, ২১ এপ্রিল মেট্রোরেলের প্রথম ট্রেন সেট ঢাকায় আসে। ১১ মে দিয়াবাড়ির ডিপোতে প্রথম ট্রেনটির ‘রিসিভিং টেস্ট’ হয়েছে। এ সময় ট্রেনটির ছয়টি বগি যুক্ত করে ধীরগতিতে চালিয়ে দেখা হয়।

রাজধানীর উত্তরার দিয়াবাড়ি থেকে মতিঝিল থেকে ২০ দশমিক ১ কিলোমিটার দীর্ঘ দেশের প্রথম মেট্রোরেল (এমআরটি-৬) পথে মোট পাঁচ সেট ট্রেন চলবে। তৃতীয় ও চতুর্থ সেট আগস্টে এবং পঞ্চম সেট সেপ্টেম্বরে আসবে। বিদ্যুৎচালিত প্রতি সেটে ছয়টি করে বগি থাকবে।

প্রায় ২১ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণাধীন এমআরটি-৬ এ স্টেশন থাকবে ১৬টি। মেট্রোরেলের কাজ চলছে তিনটি প্যাকেজে। প্রায় ১৫ কিলোমিটার উড়াল রেলপথ নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে।