আজ বুধবার, ৩ মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৮ ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৮ রজব, ১৪৪২ হিজরি
আজ বুধবার, ৩ মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৮ ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৮ রজব, ১৪৪২ হিজরি

মেঘনা নদী রক্ষায় ১১ কোটি টাকার মাস্টার প্ল্যান

মেঘনা নদীতে দখল, দূষণ এবং নাব্যতা সংকট থেকে রক্ষা করতে মাস্টার প্ল্যান নিয়েছে সরকার। এই প্ল্যান বাস্তবায়ন করতে ব্যয় হবে ১১ কোটি চার লাখ এক হাজার ৩১৬ টাকা।

শনিবার (২৩ জানুয়ারি) রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে এ উপলক্ষে চুক্তি হয়েছে। বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে স্থানীয় সরকারের বিভাগ এবং আইডব্লিউএম এর সহকারী পরিচালক সালেহ খান চুক্তি স্বাক্ষর করেন। অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ঢাকা ওয়াসা।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী তাজুল ইসলাম। তিনি বলেন, দেশের সব নদীর দূষণ রোধ এবং নাব্যতা ফিরিয়ে আনতে প্রধানমন্ত্রী আমাদের দায়িত্ব দিয়েছেন। আমি তা বাস্তবায়নে কাজ করছি। নদীর নাব্যতা ফিরিয়ে আনা এবং অবৈধ দখল মুক্ত রাখতে আমরা উদ্যোগ নিয়েছি। আমাদের লক্ষ্য ৩৯টি নদীকে দখল, দূষণ থেকে রক্ষা করা।

তাজুল ইসলাম বলেন, আমরা ঢাকারকে সুন্দর শহরে রুপান্তরিত করতে চাই। আমাদের জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তাদের মধ্যে কোনো ভুল বোঝাবুঝি নেই। আমরা সবাই একসঙ্গে কাজ করছি।

অনুষ্ঠানে ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাকসিম এ খান বলেন, প্রকল্পটির মেয়াদ ১৮ মাস। ২০২২ সালের আগস্টে মাষ্টার প্ল্যানের কাজ শেষ হবে। বুড়িগঙ্গা নদী থেকে ঢাকা ওয়াসা ট্রিটমেন্ট প্লান্ট করতে পারে না। কারণ ওই পানি দূষিত। সে কারণে আমাদের পানি আনার জন্য যেতে হচ্ছে পদ্মা নদীতে, মেঘনা নদীতে। সরকার ইতিমধ্যে উদ্যোগ নিয়েছে। বুড়িগঙ্গা নদীর দূষণ রোধ কল্পে মাষ্টার প্ল্যান তৈরি হয়েছে। এখন অ্যাকশন প্ল্যান চলছে।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সচিব হেলাল উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়, ইনস্টিটিউট অব ওয়াটার মডেলিং (আইডব্লিউএম) এবং ওয়াসার বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন:
Share on Facebook
Facebook
Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Print this page
Print