আজ রবিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৮ চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৮ শাবান, ১৪৪২ হিজরি
আজ রবিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৮ চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৮ শাবান, ১৪৪২ হিজরি

মামলার ভয় দেখাবেন না: কাদের মির্জা

নোয়াখালী-৪ আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান সামছুদ্দিন জেহানের সমালোচনা করে বসুরহাট পৌরসভার আলোচিত মেয়র ও ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জা বলেছেন, ‘একরাম সাহেব, জেহান সাহেব মামলার ভয় দেখাবেন না। ১৯৮২ সালে এরশাদ বিরোধী আন্দোলনে গিয়ে গ্রেফতার হয়েছি। টাকার গরম দেখান, লুট করে কতো টাকার মালিক হয়েছেন? কোথায় পেলেন এতো টাকা, জনগণের কাছে একদিন হিসাব দিতে হবে।’

বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) সন্ধ্যার পর বসুরহাট রূপালী চত্বরে এক জনাকীর্ণ সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

মেয়র কাদের মির্জা বলেন, ‘আমি টেন্ডারবাজির কথা বলায় নোয়াখালী সদরের অশ্বদিয়ার এক নারী কেলেঙ্কারি মাদক মামলার আসামিকে দিয়ে আমার নামে মামলা দিয়েছেন আপনারা। যে ছেলে রাতের অন্ধকারে আমার বোনদেরকে নিয়ে এ নেতাদের হাতে তুলে দেয়। আমার বিরুদ্ধে মামলায় যে বাদী হয়েছে, তার একটা ভাই সুন্দুলপুরে ডাকাতির সময় গণপিটুনিতে মারা গেছে। শত মামলা করুক, আমি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আইনের কাঠগড়ায় দাঁড়াবো, অপরাধী হলে আমার বিচার হবে। আর আপনাদের বিচার গণআদালতে করা হবে। সেদিন বেশি দূরে নয়, অপেক্ষা করুন।’

কাদের মির্জা আরও বলেন, ‘আপনি (একরামুল করিম চৌধুরী) আপনার ছেলের হাতে কেন অস্ত্র তুলে দিলেন। আপনার ছেলের জীবনতো আপনি নষ্ট করে দিয়েছেন। আমি এ ছেলেকে দায়ি করতে চাই না, দায়ি আপনি। আপনার অস্ত্র আপনাকে ধ্বংস করবে। আমার ছেলে যেদিন অস্ত্র হাতে নিবে সেদিন আত্মহত্যা করে জীবন দিবো। কবিরহাটে অস্ত্রবাজির কথা কবিরহাটের জনগণ কি ভুলে গেছে। নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের দিন আপনি সেখানে গুলি করেছেন। এর সাক্ষী নোয়াখালীর এসপি। সেদিন অস্ত্র নিয়ে আপনার ছেলেসহ আওয়ামী লীগের অফিস ভেঙেছেন। অস্ত্রের জোর দেখান? আমাদের কাছে অস্ত্র-টস্ত্র নাই, আমাদের আছে জনগণ।’

এদিকে ফরিদপুরের এমপি মুজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সনকে সংযত হয়ে কথা বলতে বলেছেন কাদের মির্জা, ‘শেখ পরিবার আমাদের আদর্শ এবং রাজনৈতিক চালিকাশক্তি। এ পরিবারকে কলঙ্কিত করবেন না। পরিবারের একজন অপরাধ করলেও এ জন্য পুরো বঙ্গবন্ধু পরিবারকে দায়ি করা যাবে না। নিক্সন চৌধুরী সাহেব আপনি বলেছেন, আমি নাকি বলেছি সব এমপি খারাপ, মদ খায়। এসব মিথ্যাচার বন্ধ করেন।’

মামলার বিষয়ে মেয়র আবদুল কাদের মির্জা বলেন, ‘অতীতেও আমার বিরুদ্ধে অসংখ্য মিথ্যা মামলা দেয়া হয়েছিল। এবার সত্য কথা বলায় দলের কিছু দুষ্কৃতিকারীর গায়ে লেগেছে।’

তিনি বলেন, ‘আমি অপরাজনীতির বিরুদ্ধে কথা বলেছি। এতে কেউ রাগ হলে বা আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিলে তাতে আমার কিছু বলার নেই। তবে যতো বাধাই আসুক সত্যবচনে একটুও পিছপা হবো না।’

শেয়ার করুন:
Share on Facebook
Facebook
Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Print this page
Print