আজ শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১২ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরি
আজ শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১২ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরি

ডিএসসিসির অভিযানে ২০ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে ২০টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেছে। এর পাশাপাশি দুটি ভ্রাম‌্যমাণ আদালত এডিস মশার প্রজননস্থল শনাক্ত করেছে। এসব অভিযানকালে ৫টি মামলা ও ৫১ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

বুধবার (৪ নভেম্বর) রাজধানীর ধানমন্ডি লেক ও ডেমরার বামৈল এলাকায় অভিযান চালানো হয়।

ডিএসসিসির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এএইচএম ইরফান উদ্দিন আহমেদের নেতৃত্বে ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের আওতাধীন ধানমন্ডি লেক ও লেক সংলগ্ন এলাকা থেকে সব ধরনের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। এ সময় লেক সংলগ্ন ওয়াকওয়ের পাশের সব হোটেল ও দোকানের লেকমুখী রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া হয়। ২০টি অধিক দোকান ভেঙে দেওয়া হয়। এছাড়া, ধানমন্ডির ৮ নং ব্রিজের কাছে মানুষের চলাচলের রাস্তায় থাকা পুলিশ বক্স উচ্ছেদ করা হয়।

ডিএসসিসির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বলেন, ‘শহুরে জীবনের একঘেয়েমি দূর করতে এবং শারীরিক কসরত করতে ধানমন্ডি লেকের পাড়ে আসেন রাজধানীবাসী। কিন্তু অসাধু চক্র সে জায়গায় অবৈধ স্থাপনা গড়ে তুলেছে। আজ আমরা সেসব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেছি।’

এদিকে, মশক নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে নগরীর ১৫ ও ৬৬ নম্বর ওয়ার্ডে অভিযান চালায় ভ্রাম্যমাণ আদালত। ডিএসসিসির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. কাজী ফয়সালের নেতৃত্বাধীন ভ্রাম্যমাণ আদালত অঞ্চল-১ এর ১৫ নম্বর ওয়ার্ডে অভিযান চালায়। এ সময় তিনি ৩১ স্থাপনা পরিদর্শন করে একটি স্থাপনায় এডিস মশার লার্ভা পাওয়ায় একটি মামলা দায়ের ও নগদ ২৫ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন। ডিএসএসসির অপর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফেরদৌস ওয়াহিদের নেতৃত্বাধীন ভ্রাম্যমাণ আদালত ৬৬ নম্বর ওয়ার্ডের বামৈল বাজার এলাকায় অভিযান চালান। এ সময় ৪৫টি স্থাপনা পরিদর্শন করে তিনটি স্থাপনায় এডিস মশার লার্ভা পাওয়ায় তিনটি মামলা দায়ের ও নগদ ২১ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

তিনটি ভ্রাম্যমাণ আদালত সব মিলিয়ে ৫১ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন।

শেয়ার করুন:
Share on Facebook
Facebook
Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Print this page
Print