আজ রবিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৮ চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৮ শাবান, ১৪৪২ হিজরি
আজ রবিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৮ চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৮ শাবান, ১৪৪২ হিজরি

ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে এজিএম-ইজিএম করার নির্দেশ বিএসইসি’র

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর বিভিন্ন ধরনের সভা-সেমিনার হাইব্রিড পদ্ধতির পরিবর্তে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে করা সিদ্ধান্ত নিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

করোনা পরিস্থিতিতে সরকারের নির্দেশনার সঙ্গে সঙ্গতি রেখে শেয়ারবাজারের কার্যক্রম পরিচালনার ক্ষেত্রে স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন।

এরই ধরাবাহিকতায় উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম), বিশেষ সাধারণ সভা (ইজিএম) ও পরিচালনা পর্ষদ সভা ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে আয়োজন করার নির্দেশ দিয়েছে বিএসইসি।

ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই-সিএসই) ব্যবস্থাপনা পরিচালকের (এমডি) কাছে এ বার্তা পাঠানো হয়েছে। একইসঙ্গে উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত সকল কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) বা প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের (সিইও) অবহিত করা হয়েছে। পাশাপাশি বিএসইসির এ সিদ্ধান্তটি কোম্পানিগুলোর ওয়েবসাইটে নোটিশ আকারে প্রকাশ করতে বলা হয়েছে।

বুধবার (৩১ মার্চ) এ সংক্রান্ত চিঠি ইস্যু করা হয়েছে বলে বিএসইসি সূত্রে জানা গেছে।

চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, দেশব্যাপী করোনভাইরাসের প্রভাব বাড়ছে। এ পরিস্থিতিতে এক জায়গায় জনসমাগমের মাধ্যমে সভা-সমাবেশ করায় করোনা সংক্রামণের ঝুঁকি রয়েছে। তাই স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর এজিএম, ইজিএম ও পরিচালনা পর্ষদ সভা ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম আয়োজন করার নির্দেশনা দেওয়া হলো।

বৈঠককালে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে স্বাস্থ্য সুরক্ষা যথাযথ নিশ্চিত করতে হবে। এছাড়া বিভিন্ন সময়ে কমিশনের আদেশের প্রাসঙ্গিক শর্তাবলী মেনে শেয়ারহোল্ডারদের ভোটা‌ধিকার এবং অন্যান্য অধিকার নিশ্চিত করতে হবে।

কমিশন সূত্রে জানা গেছে, সারাদেশে করোনাভাইরাস সংক্রামণকালে নতুন কমিশন দায়িত্ব নেওয়ার পর আইন করে অনলাইনে সভা-সেমিনার করার নির্দেশনা জারি করে। করোনা পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হওয়ার, সে আইন পরিবর্তন করে হাইব্রিড সিস্টেম চালু করে কমিশন। তবে বর্তমান প্রেক্ষপটে পুনরায় করোনা সংক্রামণের প্রভাব বেড়েছে। তাই সরকারের নির্দেশনাকে প্রাধান্য দিয়ে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর এজিএম, ইজিএম ও পর্ষদ সভা ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে আয়োজন করার সিদ্ধান্ত নেয় কমিশন।

বিএসইসির কমিশনার অধ্যাপক ড. শেখ শামসুদ্দিন আহমেদ  বলেন, ‘সরকারের ১৮ দফা নির্দেশনায় জনসমাগম নিরুৎসাহিত করা হয়েছে। করোনা পরিস্থিতির কারণে আমরা একটি আইন করে অনলাইনে সভা-সেমিনার করার নির্দেশ দিই। তবে করোনা পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হওয়ার, সেটি পরিবর্তন করে হাইব্রিড সিস্টেম করা হয়। এখন আবার করোনা সংক্রামণের প্রভাব বেড়েছে। এ জন্য করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকার জনসামাগম নিরুৎসাহিত করতে অনলাইন প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে সভা-সেমিনার করতে বলেছে। তাই সরকারের নির্দেশ মেনে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোকে এজিএম, ইজিএম ও পর্ষদ সভা ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে আয়োজন করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতিতে শেয়ারবাজার কোনোভাবেই বন্ধ থাকবে না। তাই বিএসইসির কার্যক্রম যথাযথভাবে চলবে। এ পরিস্থিতিতে কোনো কোনো কোম্পানির এজিএমে হাজার হাজার মানুষের সমাগম হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এতোগুলো মানুষের স্বাস্থ্য সুরক্ষার কথা বিবেচনায় এনে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন।’

এ বিষয়ে বাংলাদেশ পুঁজিবাজার বিনিয়োগকারী ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক কাজী আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘বর্তমান পরিস্থিতিতে এজিএমসহ অন্যান্য সভা-সেমিনার অনলাইনে আয়োজন করা যৌক্তিক। তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে পুনরায় হাইব্রিড পদ্ধতিতে সভা-সেমিনার করার ব্যবস্থা গ্রহণে কমিশনের কাছে দাবি জানাচ্ছি। তা না হলে কোম্পানিগুলো দুর্নীতির আশ্রয় নিয়ে বিনিয়োগকারীদের ঠকানোর চেষ্টা করবে।’

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি দেশের করোনাভাইরাস সংক্রমণ বেড়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় গত সোমবার (২৯ মার্চ) ১৮ দফা নির্দেশনা জারি করে সরকার। এর মধ্যে কর্মক্ষেত্রে মাস্ক পরিধানসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা, জনসাগম নিরুৎসাহিত করা, ৫০ ভাগ জনবলে অফিস পরিচালনা, অসুস্থ বা পঞ্চান্নোর্ধ বয়সের কর্মীদের বাসায় থেকে কাজ করাসহ সভা-সেমিনার অনলাইনে করার নির্দেশনা রয়েছে।

শেয়ার করুন:
Share on Facebook
Facebook
Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Print this page
Print