আজ শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১০ বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ রমজান, ১৪৪২ হিজরি
আজ শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১০ বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ রমজান, ১৪৪২ হিজরি

এক সপ্তাহেই ডিএসই’র বাজার মূলধন বেড়েছে পাঁচ শতাংশ

সাতদিন ধরে দেশের শেয়ারবাজারে বড় ধরনের উত্থান হয়েছে। এক সপ্তাহেই প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান মূল্য সূচক বেড়ে দাঁড়িয়েছে চার শতাংশের উপরে। আর বাজার মূলধন বেড়েছে ২২ হাজার কোটি টাকা বা প্রায় পাঁচ শতাংশ। আর দৈনিক গড় লেনদেনের পরিমাণ প্রায় দ্বিগুণ বেড়ে দাঁড়িয়েছে দুই হাজার কোটি টাকার কাছাকাছি।
গত সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসের লেনদেন শেষে ডিএসই’র বাজার মূলধন চার লাখ ৭০ হাজার ২৭০ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে, যা আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ছিল চার লাখ ৪৮ হাজার ২৩০ কোটি টাকা। অর্থাৎ ডিএসই’র বাজার মূলধন ২২ হাজার ৪০ কোটি টাকা বেড়েছে। এর মাধ্যমে টানা ছয় সপ্তাহে ডিএসই’র বাজার মূলধন বাড়ল ৭৯ হাজার ৭৩৭ কোটি টাকা। বাজার মূলধন বৃদ্ধির অর্থ তালিকাভুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলোর শেয়ার ও ইউনিটের দাম সম্মেলিতভাবে ওই পরিমাণ বেড়েছে।

এদিকে গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসই’র প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২১৯ দশমিক ৭০ পয়েন্ট বা চার দশমিক ০৭ শতাংশ বেড়েছে। আগের সপ্তাহে সূচকটি বাড়ে ১৮৩ দশমিক ৭০ পয়েন্ট বা তিন দশমিক ৫২ শতাংশ। তার আগের চার সপ্তাহেও সূচক বেড়েছিল। এতে টানা ছয় সপ্তাহের উত্থানে ডিএসইর প্রধান সূচকটি ৭৫০ পয়েন্ট বেড়েছে।

প্রধান মূল্য সূচকরে পাশাপাশি বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচকের বড় উত্থান হয়েছে। গত সপ্তাহজুড়ে সূচকটি বেড়েছে ৮৪ দশমিক ১১ পয়েন্ট বা চার দশমিক ২৮ শতাংশ। আগের সপ্তাহে সূচকটি বাড়ে ৮৭ দশমিক ২৩ পয়েন্ট বা চার দশমিক ৬৫ শতাংশ। এর আগের চার সপ্তাহেও সূচকটি বেড়েছিল। এতে ছয় সপ্তাহের টানা উত্থানে সূচক বেড়েছে ৩৫৮ পয়েন্ট।

টানা ছয় সপ্তাহ ধরে ইসলামী শরিয়াহ ভিত্তিতে পরিচালিত কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই শরিয়াহ্ সূচকও বেড়েছে। গত সপ্তাহে সূচক বেড়েছে ২৩ দশমিক ৮২ পয়েন্ট বা এক দশমিক ৯২ শতাংশ। এতে পাঁচ সপ্তাহে সূচকটি বেড়েছে ১৪৭ পয়েন্ট।

সবকটি মূল্য সূচকের বড় উত্থানের পাশাপাশি গত সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে ২১৫টি প্রতিষ্ঠান। বিপরীতে দাম কমেছে ১১৪টির। আর ৩৬টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

সপ্তাহের প্রতি কার্যদিবসে ডিএসইতে গড়ে এক হাজার ৯৯০ কোটি ২৩ লাখ টাকা লেনদেন হয়েছে। আগের সপ্তাহে প্রতিদিন গড়ে লেনদেন হয় এক হাজার ১৬০ কোটি ৬৯ লাখ টাকা। অর্থাৎ প্রতি কার্যদিবসে গড় লেনদেন বেড়েছে ৮২৯ কোটি ৫৪ লাখ টাকা বা ৭১ দশমিক ৪৭ শতাংশ।

গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে মোট ৯ হাজার ৯৫১ কোটি ১৮ লাখ টাকা লেনদেন হয়েছে। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় ৫ হাজার ৮০৩ কোটি ৪৬ লাখ টাকা। সেই হিসাবে মোট চার হাজার ১৪৮ কোটি ৭২ লাখ টাকা বা ৭১ দশমিক ৪৭ শতাংশ লেনদেন বেড়েছে।

গত সপ্তাহে ডিএসইর মোট লেনদেনে ‘এ’ গ্রুপ বা ভালো কোম্পানির অবদান ছিল ৭৪ দশমিক ৮৫ শতাংশ। এছাড়া ‘বি’ গ্রুপের ১৮ দশমিক শূণ্য ২ শতাংশ, ‘জেড’ গ্রুপের দশমিক ৭১ শতাংশ এবং ‘এন’ গ্রুপের ৬ দশমিক ৪২ শতাংশ অবদান ছিল।

গত সপ্তাহে ডিএসইর মূল বাজারে টাকার অঙ্কে ১০ কোম্পানির মধ্যে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিগুলো হচ্ছে- বেক্সিমকো, বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস, আইএফআইসি ব্যাংক, লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, রবি, লাফার্জহোলসিম, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যাল, পাওয়ার গ্রিড, ন্যাশনাল ব্যাংক এবং অ্যাক্টিভ ফাইন।

শেয়ার করুন:
Share on Facebook
Facebook
Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Print this page
Print