আজ রবিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৮ চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৮ শাবান, ১৪৪২ হিজরি
আজ রবিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৮ চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৮ শাবান, ১৪৪২ হিজরি

দুই মামলায় গোল্ডেন মনিরের বিরুদ্ধে চার্জশিট

রাজধানীর বাড্ডা থানায় দায়ের করা অস্ত্র ও মাদক মামলায় মনির হোসেন ওরফে গোল্ডেন মনিরের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেছে ডিবি পুলিশ। দুই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবির গুলশান বিভাগের পরিদর্শক আব্দুল মালেক ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন আদালতে এই চার্জশিট দাখিল করেন।

আদালতে সংশ্লিষ্ট থানার সাধারণ নিবন্ধন শাখার সদস্য জামাল হোসেন জানান, গত ২০ জানুয়ারি আদালতে এই চার্জশিট জমা পড়ে।

মঙ্গলবার (২৬ জানুয়ারি) মাদক মামলার চার্জশিটে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শাহিনুর রহমান ও অস্ত্র মামলার চার্জশিটে ম্যাজিস্ট্রেট মামুনুর রশীদ ‘দেখিলাম’ লিখে স্বাক্ষর করেন। আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি মামলা দুটি বিচারে পরবর্তী পদক্ষেপের জন্য বদলির আদেশ হবে।

অস্ত্র আইনের ১৯ (এ) ধারায় গোল্ডেন মনিরের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করা হয়। চার্জশিটে ১৭ জনকে সাক্ষী করা হয়। এই আইনে অভিযোগ প্রমাণিত হলে আসামির সর্বোচ্চ সাজা যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হতে পারে।

অপরদিকে, মাদক মামলায় তার বিরুদ্ধে একই তদন্ত কর্মকর্তা ২০১৮ সালের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ৩৬(১) ধারায় চার্জশিট দেন। এই মামলাতেও ১৭ জনকে সাক্ষী করা হয়েছে। এই আইনে অভিযোগ প্রমাণিত হলে তার সর্বোচ্চ তিন বছর কারাদণ্ড হতে পারে।

গত ২০ নভেম্বর গভীর রাতে রাজধানীর বাড্ডায় মনিরের বাড়ি ঘিরে রাখে র‌্যাব। ২১ নভেম্বর দুপুর পর্যন্ত টানা ৮ ঘণ্টা অভিযান চালিয়ে ওই বাসা থেকে ৬০০ ভরি সোনার গহনা, বিদেশি পিস্তল-গুলি, মদ, ১০টি দেশের বিপুল পরিমাণ মুদ্রা ও নগদ ১ কোটি ৯ লাখ টাকা জব্দ করা হয়।
র‌্যাব জানায়, ঢাকা ও আশপাশের এলাকায় দুই শতাধিক প্লট ও ফ্ল্যাটের মালিক গোল্ডেন মনির। রাজউকের কয়েকজন কর্মকর্তার যোগসাজশে জালিয়াতির মাধ্যমে অসংখ্য প্লট হাতিয়ে নেন তিনি। তবে প্রাথমিকভাবে ৩০টি প্লট ও ফ্ল্যাটের কথা স্বীকার করেছেন মনির। জব্দ করা হয়েছে দুটি বিলাসবহুল গাড়ি। প্রতিটির দাম প্রায় ৩ কোটি টাকা। পরে তার বিরুদ্ধে বাড্ডা থানায় তিনটি মামলা দায়ের করে র‌্যাব।

শেয়ার করুন:
Share on Facebook
Facebook
Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Print this page
Print