আজ রবিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৮ চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৮ শাবান, ১৪৪২ হিজরি
আজ রবিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৮ চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৮ শাবান, ১৪৪২ হিজরি

এমসি কলেজে গণধর্ষণ মামলার বিচার শুরু

সিলেটের মুরারিচাঁদ (এমসি) কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে আটকে রেখে গৃহবধূ গণধর্ষণ মামলায় আট আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) গঠন করেছেন আদালত। এর মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে আলোচিত এ মামলার বিচার শুরু হলো।

রোববার (১৭ জানুয়ারি) সকালে সিলেটের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মোহিতুল হক এ আদেশ দেন।

সংশ্লিষ্ট আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) রাশিদা সাঈদা খানম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। অভিযোগ গঠনের শুনানি উপলক্ষে আট আসামিকেই আজ সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয় বলেও জানান তিনি।

এদিকে, আদালতে অর্জুন লস্কর ও মাহবুবুর রহমান রনির জামিন ও সাইফুর রহমান, মাহবুবুর রহমান রনি ও রবিউল হাসান ইসলামের পক্ষে অভিযোগপত্রের ওপর ডিসচার্জ আবেদন করা হলে আদালত তা নামঞ্জুর করেন বলে জানিয়েছেন বাদীপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম।

আসামিরা হলেন— এমসি কলেজছাত্র সাইফুর রহমান, কলেজের ইংরেজি বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র শাহ মাহবুবুর রহমান রণি, মাহফুজুর রহমান মাসুম, অর্জুন লস্কর, বহিরাগত রবিউল ইসলাম, তারেক, রাজন ও তার সহযোগী আইনুল।

উল্লেখ‌্য, গত ৩ ডিসেম্বর ছাত্রলীগের ৮ নেতাকর্মীকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শাহপরান থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ইন্দ্রনীল ভট্টাচার্য। পরে দুই দফা শুনানি পেছানোর পর গত ১২ জানুয়ারি আলোচিত এ মামলার অভিযোগপত্র (চার্জশিট) আমলে নেন আদালত।

এর আগে গত ২৫ সেপ্টেম্বর রাতে সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রবাসে স্বামীকে আটকে রেখে নববধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। ঘটনার রাতেই নির্যাতিতার স্বামী বাদী হয়ে এসএমপি শাহপরান থানায় ৬ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করেন।

ঘটনার পর আসামিরা পালিয়ে গেলেও ৩ দিনের মধ্যে ৬ আসামিসহ সন্দেহভাজন আরও ২ জনকে গ্রেপ্তার করে করে র‌্যাব ও পুলিশ। গ্রেপ্তারের পর তাদের প্রত্যেককে ৫ দিন করে রিমান্ডে নেয় পুলিশ। রিমান্ড শেষে সকলেই দায় স্বীকার করে আদালতে ফৌজদারি কার্যবিধি বিধির ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়।

শেয়ার করুন:
Share on Facebook
Facebook
Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Print this page
Print